Sufi Faruq (সুফি ফারুক)

কুমারখালী উপজেলার, কয়া ইউনিয়নে, সুলতানপুর গ্রামের বোর্ড অফিস পাড়ায় সুফি ফারুকের মা-বোনদের জন্য ‘বিশেষ পরামর্শ সভা’ মা-বোনদের বিশেষ পরামর্শ সভা, সুলতানপুর গ্রাম, ১ নং কয়া ইউনিয়ন, কুমারখালী, কুষ্টিয়া

কুমারখালী-খোকসার মা-বোনদের জন্য প্রতিটি গ্রামের পাড়ায় পাড়ায় চলছে মা-বোনদের জন্য সুফি ফারুকের ‘বিশেষ পরামর্শ সভা’। এরই ধারাবাহিকতায় বিগত২৫-০৬-১৮ইং তারিখে কুমারখালী উপজেলার, ১ নং কয়া ইউনিয়নে, সুলতানপুর গ্রামের বোর্ড অফিস পাড়া গ্রামে উক্ত সভার আয়োজন করা হয়।

এই সভাতে গ্রামের সাধারণ মা-বোনেরা অংশগ্রহণ করেন। তাদের সাথে আলোচনা হয় মূলত চারটি মৌলিক বিষয়ে গুরুত্ব দেয়া হয়- ১. মা-বোনদের মৌলিক স্বাস্থ্যবিধি (শারীরিক ও মানসিক)। ২. পরিবারের রোগ প্রতিরোধ সম্পর্কে ধারণা। ৩. সন্তানকে সুশিক্ষিত, দক্ষ, কর্মঠ, রুচিশীল ও মানবিক করে গড়ে তুলতে মায়ের করনীয়। ৪. প্রতিটি মা বোনের আর্থিক নিরাপত্তা। ওই ৪ টি মৌলিক বিষয়ের পাশাপাশি আরও যে বিষয়গুলো নিয়ে পরামর্শ দেয়া হয় সেগুলো হলো – ১। প্রসূতি মা এবং শিশুর যত্ন। ২। শিশু/কিশোরের শারীরিক ও মানসিক যত্ন। তাদের সাথে ছেলেবেলা থেকে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরির প্রয়োজনীয়তা। ৩। পুষ্টি সমৃদ্ধি খাদ্য অভ্যাস সম্পর্কে অবগতকরণ। ৪। সন্তানের ক্যারিয়ারে লক্ষ্য উদ্দেশ্য সম্পর্কে অবগত হওয়ার চেষ্টা করা এবং সে অনুযায়ী তাকে অনুপ্রেরণা দয়া।

৫। সন্তান মাদকাসক্ত কি না! হলে তৎক্ষণাৎ কি ধরনের ব্যবস্থা নিতে হবে সে বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা দিয়া। ৬। সন্তান যাতে মাদকাসক্ত না হয় সেদিকে আগে থেকে খুব সতর্ক থাকা এবং সন্তানের সঙ্গদের সাথে মায়ের নিয়মিত যোগাযোগ রাখার প্রয়োজনীয়তা। ৭। বাড়ন্ত বয়স পর্যন্ত সন্তানদের যথেষ্ট পরিমাণ খেলাধুলার উপকারিতা সম্পর্কে ধারণা দেয়া। ৮। সন্তানদের একাডেমিক লেখাপড়ার খোঁজ নেয়ার গুরুত্ব বোঝানো। একাডেমিক লেখাপড়ার পাশাপাশি সৃজনশীল লেখাপড়ার গুরুত্ব মায়েদের সামনে তুলে ধরা।

কুমারখালী উপজেলার, কয়া ইউনিয়নে, সুলতানপুর গ্রামের বোর্ড অফিস পাড়ায় সুফি ফারুকের মা-বোনদের জন্য “বিশেষ পরামর্শ সভা”।

পরামর্শ সভার উদ্যোক্তা, তথ্য প্রযুক্তিবিদ, রাজনীতিবিদ, গুরুকুল প্রমুখ, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক সুফি ফারুক। সুফি ফারুক বলেন ” জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শে প্রাণিত হয়ে কুমারখালী-খোকসায় একটি সুশিক্ষিত, দক্ষ, কর্মঠ, রুচিশীল ও মানবিক প্রজন্ম গড়ে তোলাই আমার “মিশন” তথা “জয় বাংলা”। সেই মিশন এর অংশ হিসেবে, কুমারখালী-খোকসার তরুণদের ভবিষ্যতে দক্ষ পেশাজীবী হিসাবে তৈরি করতে, আমরা- পেশা পরামর্শ, বিনামূল্যে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ, নারীদের স্বাবলম্বী করার জন্য শেখ হাসিনা কমিউনিটি সেলাই কেন্দ্র এবং বিউটিশিয়ান কোর্সের কার্যক্রম চালিয়ে চলেছি। প্রতিনিয়ত তরুণ এবং নারীরা এই সকল কোর্সে ভর্তি হচ্ছে। এইসকল কোর্সে কৌতূহলী ও আগ্রহীদের সংখ্যা সহস্রের অধিক। আমাদের জনগোষ্ঠীর অর্ধেক হচ্ছে নারী। সেই নারীদের সচেতন করে গড়ে তা তুলতে না পারলে শেষ পর্যন্ত মিশন সফল হবার সম্ভাবনা ক্ষীণ। তাই মা-বোনদের শারীরিক ও মানসিক ভাবে সুস্থ সবল, আত্মবিশ্বাসী, জীবনের বিভিন্ন বিষয়ে নিজে সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম করে গড়ে তুলতেই আমাদের এই আয়োজন।”
প্রতিটি গ্রামের প্রতিটি মহল্লায় একটি নির্দিষ্ট বাড়িতে এই পরামর্শ সেবার আয়োজন করা হচ্ছে। আয়োজনের আগের দিন ওই মহল্লার শতাধিক মা-বোনদের পরামর্শ সভার আয়োজন সম্পর্কে অবগত করা হয়। প্রতিটি বিশেষ পরামর্শ সভায় গড়ে ৩০-৩৫ জন মা-বোন উপস্থিত থাকেন। কুমারখালী মহিলা পরিষদের কর্মী আলেফা খাতুন এই প্রকল্পের সমন্বয় করছেন। পাশাপাশি একজন পেশাদার নার্স গুলশান আফরোজ জুঁই মা-বোনদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে মৌলিক স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে পরামর্শ দিচ্ছেন।

কুমারখালী উপজেলার, কয়া ইউনিয়নে, সুলতানপুর গ্রামের বোর্ড অফিস পাড়ায় সুফি ফারুকের মা-বোনদের জন্য “বিশেষ পরামর্শ সভা”।

উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন ,স্বাস্থ্য কর্মী আলেফা খাতুন, নার্সিং পেশাজীবী গুলশান আফরোজ জুঁই, কয়া ইউয়নিয়ন পরিষদের এর সদস্য সোহরাব উদ্দিন, শেখ হাসিনা কমিউনিটি সেলাই কেন্দ্রর সমন্বয়কারী আশরাফুল নাহার শিল্পী।

 

 

 

 

 

 

এডিট- এসএস