Sufi Faruq (সুফি ফারুক)

নারী ক্ষমতায়‌নে সুফি ফারুকের শেখ হা‌সিনা ক‌মিউ‌নি‌টি সেলাই কেন্দ্র উদ্যোক্তা উন্নয়ন, কর্মসূচি, পেশা পরমর্শ সভা, ফ্রি-প্রশিক্ষণ

নারীকে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে কুষ্টিয়ার কুমারখালী অঞ্চলে শুরু হয়েছে শেখ হাসিনা কমিউনিটি সেলাই কেন্দ্র। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার উপজেলার মিরপুর ও চাপড়া এলাকায় সেলাই প্রশিক্ষণার্থীদের সঙ্গে পেশা পরামর্শ সভার পরিচালক সুফি ফারুক মতবিনিময় করেন।

এ সময় সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার উন্নয়নবান্ধব সরকার। শিক্ষাক্ষেত্রে, বিদ্যুতক্ষেত্রে, যোগাযোগক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের যে উন্নয়ন করেছে তা সর্বকালের সকল রেকর্ড পার হয়ে গেছে। শেখ হাসিনার সরকার উন্নয়নের সরকার। জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্ম হয়েছিলো বলেই সারাদেশে এতো উন্নয়ন। উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে পুরো দেশ।

তিনি আরো বলেন, দেশের উন্নয়নের চাকা সচল রাখতে এবং জননেত্রী শেখ হাসিরা’র হাতকে শক্তিশালী করতে দল ও মত নির্বিশেষে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে এবং বার বার নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে স্বাধীনতার স্বপক্ষের দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজয়কে নিশ্চিত করতে হবে।

শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, খাদ্য, বিদ্যুৎসহ বিভিন্ন খাতে উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, উন্নয়ন ও শান্তির জন্য আওয়ামী লীগের কোনো বিকল্প নেই। জনগণের ভালোবাসা নিয়ে উন্নয়নের নেতা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আবারও নৌকার জয় হবে। নৌকার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি করতে হবে।

এদিকে এই উদ্যোগ গ্রহণের কারণ জানতে চাইলে সুফি ফারুক বলেন, ‘নিজ অধিকার আদায়ে স্বাবলম্বী হওয়ার কোনো বিকল্প নেই। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সকলকে স্বাবলম্বী হতে হবে। এলাকায় তরুণ প্রজন্মের জন্য পেশা পরামর্শ সভার আওতায় প্রশিক্ষণ লাভের পর প্রথমবারের মতো শুরু করা হলো শেখ হাসিনা সেলাই কেন্দ্র। আমার জন্মভূমি কুমারখালীর প্রতি দায়িত্ববোধ থেকেই কাজটি শুরু করেছি। ইচ্ছা আছে এই পেশা পরামর্শ সভা ও শেখ হাসিনা সেলাই কেন্দ্রের কার্যক্রম কুমারখালি-কুষ্টিয়ার গণ্ডি ছাড়িয়ে এক সময় সারাদেশের নতুন প্রজন্মে পেশাগত দক্ষতা অর্জনে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।’

ফেব্রুয়ারি মাসে ‘শেখ হাসিনা কমিউনিটি সেলাই কেন্দ্র’ উদ্যোগের প্রথম দুইটি সেলাই কেন্দ্র উদ্বোধন করে ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরাম। পেশা পরামর্শ সভার ফ্রি সেলাই প্রশিক্ষণ শেষে প্রতি ১-২ টি ব্যাচের জন্য ১টি করে কমিউনিটি সেলাই কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। সদস্যরা সবাই এই সেলাই কেন্দ্রটি ব্যবহার করে নিজেদের সেলাইয়ের প্রয়োজন মেটানোর পাশাপাশি পুঁজি তৈরি করতে সক্ষম হবে।