Sufi Faruq Ibne Abubakar (সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর)

পেশা পরামর্শ সভা | প্রস্তুতি সভা | শোমসপুর বাজার | শোমসপুর গ্রাম | সদকী ইউনিয়ন | কুমারখালী উপজেলা ৬ নং সমশপুর ইউনিয়ন, পেশা পরমর্শ সভা, শোমসপুর

পেশা পরামর্শ সভা - সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর | Career consultation for Rural Youth! - Sufi Faruq Ibne Abubakar

আজ ২০ জুলাই, ২০১৭ কুষ্টিয়া জেলার খোকসা উপজেলার শোমসপুর ইউনিয়নের শোমসপুর গ্রামের বাজারে অনুষ্ঠিত হয়েছে “পেশা পরামর্শ সভা”র প্রস্তুতি সভা।

কুমারখালী -খোকসার তরুণদের যোগ্য পেশাজীবী হিসেবে গড়ে তুলতে এই বিশেষায়িত কর্মসূচী হাতে নিয়েছেন তরুণ আওয়ামীলীগ নেতা, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক তথ্য প্রযুক্তিবিদ সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর। এই কর্মসূচির আওতায় কুমারখালী-খোকসার তরুণ প্রজন্মকে শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ ও সজীব ওয়াজেদ জয় এর জ্ঞান ভিত্তিক অর্থনীতির জন্য যোগ্য পেশাজীবী হিসেবে প্রস্তুত করার কাজ করা হচ্ছে।

প্রতিটি ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান ও হাটে বাজারে প্রচারণা ও প্রস্তুতি সভার মাধ্যমে তরুণদের রেজিস্ট্রেশন করা হয়। অনলাইনেও রয়েছে রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ। এরপর রেজিস্টার্ড ডাটাবেসের মধ্যে থেকে তরুণদের নিয়ে সবার জন্য প্রয়োজন এমন সব বিষয়ে সেমিনার ও নির্দিষ্ট স্কিল এসেসমেন্ট করা হয়। সেই এসেসমেন্ট এর উপরে ভিত্তি করে যার যেমন প্রশিক্ষণ দরকার তার জন্য সে ধরনের প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় আজ শোমসপুর ইউনিয়নের শোমসপুর গ্রামের বাজারে অনুষ্ঠিত হল “পেশা পরামর্শ সভা”র প্রস্তুতি সভা। সভাটি পরিচালন করেন স্থানীয় সংগঠক আমরান হক। উপস্থিথ ছিলেন প্রভাষক আব্দুস সালাম, ছাত্রনেতা রিজন আলী, শামিম রানা সহ এই কর্মসূচি সম্পৃক্ত নেতাকর্মীবৃন্দ।

পেশা পরামর্শ সভা মূলত তরুণ প্রজন্মের ক্যারিয়ার কোচিং। এটি কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক তথ্য প্রযুক্তিবিদ সুফি ফারুকের একটি উদ্যোগ।

এই প্রকল্পের আওতায় কুমারখালী-খোকসার তরুদের ডিজিটাল বাংলাদেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর পেশাগুলোর উপযুক্ত হয়ে তৈরি হাবার জন্য সচেতনতা ও দিকনির্দেশনা দেয়া হয়। পাশাপাশি তাদেরকে এসব সভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্মিত ডিজিটাল বাংলাদেশ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য পুত্র ও তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব জয়ের ভবিষ্যৎ জ্ঞান ভিত্তিক অর্থনীতির বাংলাদেশের অবারিত পেশাজীবীদের সম্ভাবনাগুলো তুলে ধরা হয়। এছাড়া সেসব পেশা গ্রহন করার উপযোগী হয়ে তৈরি হবার জন্য প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেয়া হয়।

বিভিন্ন খাতের সফল পেশাজীবী ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষকদের দিয়ে পরিচালিত হয় এসব কর্মশালা। সকল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্যই মূলত এই আয়োজন। পাশাপাশি যারা বর্তমানে লেখাপড়া শেষ করে কর্মহীন রয়েছেন তারাও অংশগ্রহণ করে এসব কর্মশালাতে।

পেশা বাছাই, নিজেকে পেশাজীবী হিসেবে গড়ে তোলা, সিভি বানানো, ইন্টার্ভিউ দেয়া সহ সফল হবার জন্য দরকারি বিভিন্ন বিষয়ে হাতে কলমে পেশাদারি প্রশিক্ষক গনের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। স্কিল এসেসমেন্টের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের অধিকতর প্রশিক্ষণের প্রয়োজনীয়তা অনুধাবিত হলে তাদের জন্য সে ধরনের প্রশিক্ষণের আয়োজন বা অন্য কোন যায়গা থেকে প্রশিক্ষণ নেবার জন্য বৃত্তির ব্যবস্থা করে দেয়া হয়।

এই পুরো বিষয়টি শিক্ষার্থীদের জন্য সম্পূর্ণ ফ্রি। অর্থাৎ সুফি ফারুক এর পক্ষ থেকে উপহার।

সুফি ফারুক ঘোষণা করেছেন “কুমারখালী-খোকসায় একটি শিক্ষিত, দক্ষ, কর্মক্ষম ও রুচিশীল প্রজন্ম তৈরিই আমার- “জয় বাংলা””। তার সেই স্বপ্ন পূরণের ধারাবাহিকতায় নেয়া সকল প্রকল্পের মধ্যে এটি অন্যতম।