Sufi Faruq Ibne Abubakar (সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর)

আর্কাইভ

বক্তৃতা সংগ্রহের উদ্দেশ্য বক্তৃতা সংগ্রহ

সবদেশে-সবকালে রাজনীতিতে বক্তৃতার গুরুত্ব অপরিসীম। পৃথিবী বদলে দেয়া সিদ্ধান্তগুলোর ঘোষণা হয়েছে কোন একটি বক্তৃতার মাধ্যমে। কয়েক মিনিটের বক্তৃতা বদলে দিয়েছে কোন দেশের মানচিত্র; কোন জাতির ভাগ্যাকাশ। সেসব বক্তৃতাতে এক ধরনের যাদুশক্তি ছিলো। কয়েক মিনিটে আবৃত্তি করা সেসব পঙক্তিমালার শক্তি – লক্ষ, বুলেট বোমাকে হার মানিয়েছে। যুগেযুগে আদর্শ প্রচারের সবচেয়ে বলিষ্ঠ মাধ্যম বক্তৃতা। যেকোন একটি সময়কে

বিস্তারিত

যদি আর বাঁশী না বাজে – কাজী নজরুল ইসলাম (মে ২৪, ১৮৯৯ – আগস্ট ২৯, ১৯৭৬) বক্তৃতা সংগ্রহ

বন্ধুগণ, আপনারা যে সওগাত আজ হাতে তুলে দিলেন আমি তা মাথায় তুলে নিলুম। আমার সকল তনু মন ও প্রাণ আজ বীণার মত বেজে উঠেছে । তাতে শুধু একটি মাত্র সুর ধ্বনিত হয়ে উঠছে – আমি ধন্য হলুম, আমি ধন্য হলুম। আমায় অভিনন্দিত আপনারা সেই দিনই করেছেন যেদিন আমার লেখা আপনাদের ভালো লেগেছে। বিংশ শতাব্দীর অসম্ভবের

বিস্তারিত

মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত সংগ্রাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

‘এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম’। যতদিন বাঙ্গালীর সার্বিক মুক্তি অর্জিত না হবে, যতদিন একজনও বাঙ্গালী বেঁচে থাকবে, এই সংগ্রাম চলতেই থাকবে। মনে রাখবেন, কম রক্তপাতের মধ্যে যিনি চুড়ান্ত লক্ষ্য অর্জন করতে পারেন তিনিই সেরা সিপাহ-সালার। তাই বাংলার গনগণের প্রতি আমার নির্দেশ, সংগ্রাম চালিয়ে যান। শৃংখলা বজায় রাখুন, সংগ্রামের কর্মপন্থা নির্ধারণের ভার আমার

বিস্তারিত

জয় আমাদের হবেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

জয়দেবপুরে নিরস্ত্র জনতার উপর গুলি চালিয়ে প্রায় ৪০ জন বাঙ্গালীকে হত্যা করা হয়েছে। আমি এই হত্যাকান্ডের তীব্র প্রতিবাদ করে বলতে চাই, সরকার যদি মনে করে জনগণকে ভীত সন্ত্রস্ত করতে পারবেন তবে তারা মুর্খের স্বর্গে বাস করছেন। দেশ বর্তমানে যে রাজনৈতিক সঙ্কটের সম্মুখীন তার সমাধান শান্তিপূর্ণভাবে হতে পারে। কিন্তু ধৈর্য ও সহিঞ্চুতারও একটা সীমা আছে। জয়দেবপুরের

বিস্তারিত

আওয়ামী লীগের ঘোষণাপত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ

[আওয়ামী লীগের ঘোষণা পত্র রচনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব অংশ গ্রহণ করেন। সেই কারণে আমরা এই ঘোষণা পত্রটিকে এখানে সংযোজিত করলাম] সত্তরের দশকে পৌঁছেই পাকিস্তানের জনগণ যে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছে, অন্যকোন দেশের মানুষকে তারচেয়ে বড় কোন চ্যালেঞ্জের মোকাবেলা করতে হয়নি। স্বাধীনতা অর্জন এবং পাকিস্তানসৃষ্টির ফলে দেশবাসীর যে হৃদয় মন আশা-আকাঙ্খার উদ্ভাসিত হয়ে উঠেছিল সে মন নৈরাশ্য

বিস্তারিত

অপপ্রচারের জবাব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

পাকিস্তানের জাগ্রত জনগণের মনে আজ আর কোন সন্দেহ থাকার অবকাশ নাই যে, ষড়যন্ত্রকারী কায়েমী স্বার্থবাদী আর তাদের ফর্মাবরদাররা আজ জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের দ্বারা শাসনতন্ত্র প্রণয়ন ও জনগণের নিকট ক্ষমতা হস্তান্তরের কার্যক্রম বানচাল করিবার জন্য শেষবারের মতো উম্মত্ত প্রয়াসে মাতিয়াছে। বার কোটি মানুষের ভাগ্য এতই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার যে, ইহা লইয়া ছিনিমিনি খেলার অবকাশ নাই। গত এক

বিস্তারিত

স্বাধীন বাংলাদেশ – বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

অনেক দিন ধরেই আমরা বাংলাদেশের স্বায়ত্বশাসন দাবি করে আসছি। কিন্তু আমাদের কোন কথাতেই পশ্চিম পাকিস্তানীরা কান দেওয়া প্রয়োজন মনে করেননি। চিরকাল চেষ্টা করেছে আমাদের দাবিয়ে রাখতে। ফলে সাড়ে সাত কোটি বাঙ্গালীকে শোষণ করে পশ্চিম পাকিস্তানআজ সমৃদ্ধ, আর আমরা ভিখারী। গত নির্বাচনে আমরা দল প্রাদেশিক আইন সভায় নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাখ করেছে। জাতীয় পরিষদেও আমরা একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা

বিস্তারিত

স্বাধিকার আদায়ের জন্য প্রস্তুত হবার আহবান – বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

বাংলার স্বাধিকার প্রতিষ্ঠার দাবী নস্যাৎ করে দেওয়ার জন্য শক্তি প্রয়োগ করা হলে তা বরদাস্ত করা হবে না। প্রয়োজনে বাঙ্গালী আরো রক্ত দেবে, জীবন দেবে, কিন্তু স্বাধিকারের দাবীর প্রশ্নে কোন আপস করবে না। বাংলার মানুষ যাতে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অধিকার নিয়ে বাঁচতে পারে, বরকত-সালাম-রফিক-শফিকরা নিজেদের জীবন দিয়ে সেই পথ দেখিয়ে গেছেন। বাহান্ন সালের রক্তদানের পর

বিস্তারিত

১৯৭১ সালের ১লা মার্চে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

পহেলা মার্চ হঠাৎ ঘোষণা হলো জাতীয় পরিষদের অধিবেশন অনির্দিষ্টকালের জন্য বাতিল। তারপরই বাংলাদেশের মানুষের সামনে উচিয়ে ধরা হলো মিলিটারির বন্দুক। নিরস্ত্র মানুষ, মজুর, শ্রমিক এবং ছাত্র ভাইয়েরা এই ঘোষণার প্রতিবাদ জানিয়েছিল, নির্বিচারে গুলি চালানো হয়েছে তাদের উপর। গত সপ্তাহে যারা মারা গেছে তারা সব অমর শহীদ। গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষার জন্য তারা প্রাণ দিয়েছে। এই শহীদদের

বিস্তারিত

সাতই জুন স্মরণে – বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

৭ই জুন একটি অবিস্মরণীয় দিন। ১৯৬৬ সালের এই দিনটিতে টেকনাফ হইতে পঞ্চগড় পর্যন্ত সংগ্রামী বাংলার গণমানুষ স্বৈরাচারী শাসন ও শোষণের বিরুদ্ধে প্রচন্ড বিক্ষোভে ফাটিয়ে পড়িয়াছিল। এইদিনে পূর্ণ গণতন্ত্র, রাজবন্দীদের মুক্তি এবং ছয় দফা দাবী বাস্তবায়নের দাবীতে সংগ্রামরত বাঙ্গালির বুকের তাজা রক্তে রঞ্জিত হইয়া গিয়াছিল শ্যামল বাংলার মাটি। অপরাজেয় বাংলার সূর্য সন্তানেরা সেদিন স্বৈরতন্ত্রী রাজশক্তির নির্মম

বিস্তারিত