Sufi Faruq (সুফি ফারুক)

আর্কাইভ

এক আসমানি চোর ভবের শহর লুটছে সদায়- ফকির লালন সাঁই (১৭৭৪-১৮৯০) প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

এক আসমানি চোর ভবের শহর লুটছে সদায় । আসা-যাওয়া কেমন রাহা কে দেখেছ বলো আমায় ।। শহর বেড়ে অঘাত দোরে মাঝখানে ভাবের মন্দিরে সেই নিগুম জায়গায় তার পবনদ্বারে চৌকি ফেরে এমন ঘরে চোর আসে যায় ।। এক শহর চব্বিশ জেলা ডাক কামান ছাড়ে দু’বেলা বলিয়ে জয় জয় ধন্য চোরে এ ঘর মারে রাখে না কাহার

বিস্তারিত

এক আজগুবি এক ফুল- ফকির লালন সাঁই (১৭৭৪-১৮৯০) প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

এক আজগুবি এক ফুল । ও তার কোথায় বৃক্ষ কোথায় আছে মূল ।। ফুটেছে ফুল মান সরোবর স্বণগোঁফা ভ্রমরা তার কখন মিলন হয় রে দোহার রসিক হলে জানা যায় রে স্থূল ।। শম্ভু বিম্বু নাই রে সে ফুলে মধুকর কেমনে খেলে পড় সহজ প্রেম-ইস্কুলে জ্ঞানের উদয় হলে যাবে ভুল ।। শনি মুকুল এরা দু’জন সে

বিস্তারিত

এক অজান মানুষ ফিরছে দেশে- ফকির লালন সাঁই (১৭৭৪-১৮৯০) প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

এক অজান মানুষ ফিরছে দেশে । তারে চিনতে হয়, তারে মানতে হয় ।। শরিয়তের বেনা যাতে জানে না তা শরিয়তে জানা যাবে মারেফতে যদি মনের বিকার যায় ।। মূল ছাড়া এক আজগুবি ফুল ফুটেছে ভাবনদীর কুল চিরদিন এক রসিক বুলবুল সেই ফুলেতে মধু খায় ।। শুনেছি সেই মানুষের খবর আলেফের জের মিমের জবর লালন বলে

বিস্তারিত

এই মানুষে সেই মানুষ আছে- ফকির লালন সাঁই (১৭৭৪-১৮৯০) প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

এই মানুষে সেই মানুষ আছে । কত মুনি-ঋষি যোগী-তপস্বী তারে খুঁজে বেড়াচ্ছে ।। জলে যেমন চাঁদ দেখা যায় ধরতে গেলে হাতে কে পায় আলেক মানুষ অমনি সদাই আছে আলেকে বসে ।। অচিনদলে বসতি যার দ্বিদল পদ্মে বারাম তার দল নিরূপণ হবে যাহার সে রূপ দেখবে অনাসে ।। আমার হল বিভ্রান্তি মন বাইরে খুঁজি সাঁই কয়

বিস্তারিত

এই মানুষে মানুষ আছে সবর্দা রসে খেলিছে সাঁতার – ফকির লালন সাঁই (১৭৭৪-১৮৯০) প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

এই মানুষে মানুষ আছে সবর্দা রসে খেলিছে সাঁতার । সেই রসরাজ করিছে বিরাজ শম্ভুরসের মাঝ করে দীপ্তকার ।। রস না জেনে রসিক যারা তারা ধরতে চায় অধরা যায় না সে চাঁদ ধরা, মিছে শ্রম করা দৃষ্টি হয় সেতারা গম্ভু বুঝা ভার ।। নিরন্তর সাঁই খেলিছে রসে চিনিতে বালিতে রয়েছে মিশে হস্তী না পায় দিশে, তথা

বিস্তারিত

এই বেলা তোর মনের মানুষ চিনে সাধন কর- ফকির লালন সাঁই (১৭৭৪-১৮৯০) প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

এই বেলা তোর মনের মানুষ চিনে সাধন কর । মানুষ পলাইবে দেহ ছেড়ে পড়ে রবে শুধু ঘর ।। ঘরের মধ্যে তের তিন তের আর কোন দরজা করেছ সার ঘরের মধ্যে বাস্ত খুঁটি সেইটা কর গে মূলাধার ।। ডুবে থাক গে রূপসাগরে বসত কর গে জুতের ঘরে লালন বলে, মনের মানুষ চিনা হলো ভার ।।

এই বেলা তোর ঘরের খবর জেনে নে রে মন- ফকির লালন সাঁই (১৭৭৪-১৮৯০) প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

এই বেলা তোর ঘরের খবর জেনে নে রে মন । কেবা জাগে কেবা ঘুমায় কে কারে দেখায় স্বপন ।। শব্দের ঘরে কে বারাম দেয় নি:শব্দে কে আছে সদাই যেদিন হবে মহাপ্রলয় কে কার করে দমন ।। দেহের গুরু আছে কেবা শিষ্য হয়ে কে দেয় সেবা যেদিনে তাই জানতে পাবা কোলের ঘোর যাবে তখন ।। যে

বিস্তারিত

এই দেশেতে এই সুখ হল আবার কোথায় যাই না জানি (৯৮) প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

এই দেশেতে এই সুখ হর আবার কোথায় যাই না জানি । পেয়েছি এক ভাঙা নৌকা জনম গেল ছেঁচতে পানি ।। কার বা আমি কেবা আমার প্রাপ্ত বস্তু ঠিক নাহি যার বৈদিক মেঘে ঘোর অন্ধকার উদয় হয় না দিনমণি ।। আর কি রে এই পাপীর ভাগ্যে দয়ালচাঁদের দয়া হবে আমার দিন এই হালে যাবে বাইয়ে পাপের

বিস্তারিত

বেশ তো তাই হোক- পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রিয় গানের বানী সংগ্রহ

গীতিকার: পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় কণ্ঠ ও সুর : মান্না দে (জন্মনাম : প্রবোধ চন্দ্র দে): (জন্ম: মে ১, ১৯১৯; মৃত্যুঃ ২৪ অক্টোবর, ২০১৩ )   বেশ তো, তাই হোক, দেখা নয়, নাই হোক, অমনি ফুরাবে সব মানি না তা মানি না। যে মন, দিয়েছে আর যে মন, দিয়েছে কি করে ফেরাবে তাকে, জানি তা জানি না বেশ

বিস্তারিত