Sufi Faruq (সুফি ফারুক)

আর্কাইভ

১৯৭০ সালের নির্বাচনে জয়লাভের পর ৯ ডিসেম্বরে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

[আওয়ামী লীগ পূর্ব পাকিস্তানের ৭ ডিসেম্বর নির্বাচনে ১৫৩টি আসনের মধ্যে ১৫১টি আসন লাভ করে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঢাকার ২টি আসন থেকে বিপুল ভোটে জয়ী হন। প্রাদেশিক কাউন্সিল লীগ প্রধান খাজা খায়ের উদ্দিন ১ লাখের বেশি ভোটে বঙ্গবন্ধুর কাছে পরাজয় বরণ করেন। এ নির্বাচনে অন্যান্য পরাজিত প্রার্থীদের মধ্যে ছিলেন ফজলুল কাদের চৌধুরী, কাজী আব্দুল কাদের,

বিস্তারিত

১৯৭০ সালের ৬ ডিসেম্বর নির্বাচনের পূর্বে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

[পাকিস্তান প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর সর্বপ্রথম প্রাপ্তবয়স্কদের ভোটাধিকারের ভিত্তিতে প্রত্যক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে জাতীয় পরিষদের নির্বাচন হয় ৭ ডিসেম্বর, ১৯৭০ সালে। জনসংখ্যার ভিত্তিতে দেশের উভয় অঞ্চলের মধ্যে আসন বন্টন করা হয়। মোট ৩০০টি আসনের মধ্যে ২৯০টি আসনের নির্বাচন ৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। পশ্চিম পাকিস্তানের একটি আসনের একজন  প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দিতার নির্বাচিত হন। ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছাস বিধ্বস্ত পূর্ব

বিস্তারিত

১৯৭০ সালের ১ ডিসেম্বর নির্বাচনের পূর্বে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

আমার প্রিয় দেশবাসী ভাই-বোনেরা। আস্সালামু আলাইকুম। আমার সংগ্রামী অভিনন্দন গ্রহণ করুন।   আগামী ৭ই ডিসেম্বর সারাদেশব্যাপী জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে প্রথম সাধারণ নির্বাচনের তারিখ ধার্য করা হয়েছে। জনগণের ত্যাগ ও নিরবচ্ছিন্ন সংগ্রামের ফল হচ্ছে এই নির্বাচন। সারাদেশ ও দেশের মানুষকে তীব্র সংকট ও দুর্গতি থেকে চিরদিনের মতো মুক্ত করার সুযোগ এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গ্রহণ করা

বিস্তারিত

১৯৭০ সালের নভেম্বরে বঙ্গবন্ধুর বেতারে ভাষণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

পাকিস্তানঅর্জনের দীর্ঘ তেইশ বছর পর আগামী ৭ই ডিসেম্বর এই প্রথম জাতীয় ভিত্তিতে জনগণের সরাসরি ভোটে দেশে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। আজ থেকে ২৪ বছর আগে স্বাধীন দেশের স্বাধীন নাগরিক হিসেবে মাথা তুলে দাঁড়াবার রঙ্গীন বুক বেঁধে এমনি করেই একদিন জনগণ ভোট দিয়েছিলেন পাকিস্তানের পক্ষে, কিন্তু দিন না যেতেই দেখেছেন পাকিস্তানে জন্মলগ্নে জনগণের দেয়া সুস্পষ্ট

বিস্তারিত

১৯৭০ সালের ৩০ অক্টোবর জয়দেবপুরের জনসভায় বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

আসন্ন ডিসেম্বরের নির্বাচন ক্ষমতা লাভের নির্বাচন নয়। এই নির্বাচনে স্বাধীনতার পর থেকে শোষিত ও অবহেলিত বাংলার ভাগ্য নির্ধারিত হবে। নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ ৬-দফা কর্মসূচী বাস্তবায়ন করতে চায়। এর অর্থ এই দাঁড়ায় বাঙ্গালিরাই হবে তাদের নিজেদের সম্পদের মালিক। বাংলার উর্বর মাটিতে যেমন সোনা ফলে, ঠিক তেমনি পরগাছাও জন্মায়। একইভাবে বাংলাদেশে কতগুলো রাজনৈতিক পরগাছা রয়েছে, যারা

বিস্তারিত

১৯৭০ সালের ২৮ অক্টোবর সাধারণ নির্বাচন প্রাক্কালে বঙ্গবন্ধুর রেডিও-টিভি ভাষণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

[সার্বজনীন ভোটাধিকারের ভিত্তিতে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনের প্রাক্কালে পাকিস্তান টেলিভিশন সার্ভিস ও রেডিও পাকিস্তান কর্তৃক আয়োজিত “রাজনৈতিক সম্প্রচার” শীর্ষক বক্তৃতামালায় পাকিস্তান আওয়ামী লীগ প্রধান শেখ মুজিবুর রহমান প্রথম বক্তা ছিলেন। ২৮ অক্টোবর, ১৯৭০ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বেতার ও টিভিতে নিন্মলিখিত ভাষণ দেন। পূর্ব পাকিস্তানের শ্রোতাদের জন্যে বাংলায় ও পশ্চিম পাকিস্তানের শ্রোতাদের জন্যে ইংরেজিতে রেকডিং করা

বিস্তারিত

স্বাধিকার আদায়ের জন্য প্রস্তুত হবার আহবান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

বাংলার স্বাধিকার প্রতিষ্ঠার দাবী নস্যাৎ করে দেওয়ার জন্য শক্তি প্রয়োগ করা হলে তা বরদাস্ত করা হবে না। প্রয়োজনে বাঙ্গালী আরো রক্ত দেবে, জীবন দেবে, কিন্তু স্বাধিকারের দাবীর প্রশ্নে কোন আপস করবে না। বাংলার মানুষ যাতে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অধিকার নিয়ে বাঁচতে পারে, বরকত-সালাম-রফিক-শফিকরা নিজেদের জীবন দিয়ে সেই পথ দেখিয়ে গেছেন। বাহান্ন সালের রক্তদানের পর

বিস্তারিত

সাতই জুন স্মরণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

৭ই জুন একটি অবিস্মরণীয় দিন ১৯৬৬ সালের এই দিনটিতে টেকনাফ হইতে পঞ্চগড় পর্যন্ত সংগ্রামী বাংলার গণমানুষ স্বৈরাচারী শাসন ও শোষণের বিরুদ্ধে প্রচন্ড বিক্ষোভে ফাটিয়ে পড়িয়াছিল। এইদিনে পূর্ণ গণতন্ত্র, রাজবন্দীদের মুক্তি এবং ছয় দফা দাবী বাস্তবায়নের দাবীতে সংগ্রামরত বাঙ্গালির বুকের তাজা রক্তে রঞ্জিত হইয়া গিয়াছিল শ্যামল বাংলার মাটি। অপরাজেয় বাংলার সূর্য সন্তানেরা সেদিন স্বৈরতন্ত্রী রাজশক্তির নির্মম

বিস্তারিত

ঝড়ের পরিপেক্ষিতে বঙ্গবন্ধুর প্রদানকৃত বিবৃতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

এই দীর্ঘ তেইশ বছর পশ্চিম পাকিস্তানীরা বাংলাদেশকে একটা উপনিবেশ এবং বাজার হিসেবে গণ্য করে এসেছে। স্বাধীন দেশের স্বাধীন নাগরিকের অধিকার থেকে আমরা বঞ্চিত হয়েছি। গুরুত্বপূর্ণ সমস্ত বিষয়ের সিদ্ধান্তই নেওয়া হয় পিন্ডি বা ইসলামাবাদে। ক্ষমতা সবই কেন্দ্রের আমলাদের হাতে । তারা দিনের পর দিন উপেক্ষা করে চলেছে বাংলাদেশকে। তাদের দীর্ঘদিনের বৈষম্যমূলক আচরণের ফলে আমরা বারবার প্রকৃতির

বিস্তারিত

১৯৭০ সালের ৭ জুন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দেয়া ভাষণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

ভাইয়েরা আমার আজ দুটি কথা বলতে চাই। উনি আপনাদের অতি পরিচিত কুমিল্লা জেলার গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন, যুক্তফ্রন্ট করেন। আমাদের শ্রদ্ধেয় মাইন ভাই, সাধারণ সম্পাদক, যে মাইন ভাইকে আপনারা সবাই চিনেন, তার সব বায়েয়াপ্ত করা হয়। জেলখানায় তাকে বন্দী করা হয়। তাকে হত্যা করা হয়। আওয়ামী লীগের ইতিহাসের, জনগণের মুক্তির ইতিহাসের সঙ্গে তিনি জড়িত। তিনি

বিস্তারিত