Breaking News :

আমরা জাতি হিসেবে সব সুবিধারই অপব্যবহার করতে চাই

আমরা জাতি হিসেবে সব সুবিধারই অপব্যবহার করতে চাই।
আইন শৃঙ্খলা বাহিনী আপনাদের গুজব ছড়ানো লোকের লিংক দিতে বলেছিল, আপনাদের সাথে ব্যক্তিগত শত্রুতা আছে এমন লোকের লিংক না।

যাহোক:
১. গুজব ছড়ানো মানে বোঝানো হচ্ছে – স্থান, কাল, ঘটনা সম্পর্কে মিথ্যে তথ্য ছড়ানো, যাতে সাধারণ জনগণ বা কোন জনগোষ্ঠী বিভ্রান্ত হতে পারে, সেন্টিমেন্টাল হতে পারে, যাতে বিশৃংখলা সৃষ্টির মাধ্যমে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
এমন তথ্যকে গুজব হিসেবে রিপোর্ট করবেন। সেটা ব্যক্তি বা গোষ্ঠী যেই হোক। বিভ্রান্তিকর তথ্য সে জেনে ছড়াক বা না জেনে ছড়াক – এটা ফৌজদারি অপরাধ।

২. অারেকটি অপরাধ হচ্ছে কারও সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য ছড়ানো। যে কোন ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমাণ ছাড়াই কোন একটি দাবী করা। যেমন- অমুক চোর বা অমুক এই অপরাধ করেছে। কিন্তু এই ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোন প্রমাণ আপনার কাছে নেই। তখন আপনি অপরাধী বলে গণ্য হবেন, কারণ আপনি প্রমাণ ছাড়া তার/তাদের চরিত্র হনন করছেন।

৩. আপনার বা আমার সম্পর্কে কেউ ব্যক্তিগত পছন্দ অপছন্দ জানানো কোন অপরাধ নয়। যেমন – আমি তাকে পছন্দ করি না। এ পর্যন্ত কোন অপরাধ নেই। কিন্তু যখনি বলবেন অমুক কারণে তাকে পছন্দ করি না। তখন সেই কারণটি প্রমাণ করার আইনি দায়িত্ব আপনার।

আমাদের বর্তমান পরিস্থিতির সুষ্ঠু সমাধানের জন্য ১ নম্বর পয়েন্ট ধরে সঠিক রিপোর্ট করা কাম্য।
আমাদের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর রিসোর্স লিমিডেট। তাদেরকে কনফিউজিং তথ্য দিলে তাদের সময় নষ্ট হয় এবং সঠিক দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হবার সুযোগ তৈরি হয়।

২ বা ৩ পয়েন্টে জেনে বুঝে কাজ করুন।
এখন ব্যস্ততার কারণে অনেক কিছু অবজ্ঞা করলেও, অনলাইন এমন একটা জায়গা যেখানে সব কিছুর ট্রেইল থেকে যায়। কেউ যদি বিচার পেতে এডামেন্ট হয়, সেক্ষেত্রে আপনি উল্টো পাল্টা কিছু করলে তার শাস্তি আপনাকে পেতে হবে।

Read Previous

আন্দোলনের শুরুতে শিক্ষার্থীরা শান্ত ছিল। কারও ইচ্ছে ছিল না সহিংস কিছু করার।

Read Next

প্রজন্ম, দাবী আদায় হবার পরেও, খেয়াল করে দেখো – এখন তারা কি চাইছে?