ঈদ উদযাপনের টাকা দিয়ে দুস্থদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ……… “কালপুরুষ”

ঈদের আনন্দ গরীব দুঃখী মানুষের সাথে ভাগাভাগি করে নেওয়ার জন্য কালপুরুষ এক অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করেছে। তারা প্রতিবার থানার মোড়ে ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠান (প্যান্ডেল) করত। কিন্তু এবার কালপুরুষ প্যান্ডেল করার জন্য যে টাকা ব্যয় করত তা দিয়ে বস্ত্র কিনে দুস্থ মানুষের মাঝে বিতরণ করে। উক্ত বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাসান মেহেদী, বিশিষ্ট সমাজসেবক সাইফুল খান শিমুল, প্রযুক্তিতে কুষ্টিয়ার সভাপতি সুফী ফারুক ইবনে আবুবকর, প্রযুক্তিতে কুষ্টিয়ার পরামর্শক মনির হাসান রিন্টু, জেলা ছাত্রলীগ নেতা রানা, দৈনিক দিনের খবর এর সম্পাদক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু। কালপুরুষের সভাপতি ইমদাদুল হক রাজু, সাধারণ সম্পাদক মুহাইমিনুর রহমান পলল ও কালপুরুষ সংগঠনের সক্রিয় সংগঠকবৃন্দ অনিক, হিমু, শিমুল, মেহদী, আনান, হিল্লোল, বজলু, শুভ, আরিফ, আলি ইরফান, রিংকু অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন প্রযুক্তিতে কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক রাকিবুজ্জামান তানিম ও নাদিমুজ্জামান তনু।

হাসান মেহেদী বলেন তিনি সকল ভাল কাজে কালপুরুষের পাশে থাকবেন এবং সবাইকে কালপুরুষের দৃষ্টান্ত অনুকরণ করার আহ্বান জানান। সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর তার বক্তব্যে বলেন শব্দদুষন ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির মাধ্যমে রোড জ্যাম না করে দুস্থদের মাঝে কালপুরুষের বস্ত্র বিতরণ কুষ্টিয়ার যুব সমাজের মধ্যে যুগান্তকারী পদক্ষেপ। কালপুরুষের সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন আমাদের সামর্থ্য খুব বেশী না কিন্তু আমাদের এই অল্প প্রয়াস কুষ্টিয়ার যুব সমাজের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করবে এবং কালপুরুষের এই মহান উদ্যোগ সবাইকে মানবতার সেবাই এগিয়ে আসার জন্য উদ্বুদ্ধ করবে বলে আশা রাখি। কালপুরুষের সাধারণ সম্পাদক মুহাইমিনুর রহমান পলল বলেন কালপুরুষের আদর্শের উপর ভিত্তি করে মানব সেবার এই যুগান্তকারী পদক্ষেপ প্রতি ঈদে চলমান রাখব বলে শপথ করছি কুষ্টিয়া বাসীর কাছে এবং কালপুরুষের সকল সংগঠক ও অভিভাবকের পরিশ্রমের প্রতিদান হিসেবে কুষ্টিয়া বাসীর দোয়া ও ভালোবাসা কামনা করছি। উক্ত অনুষ্ঠানে কালপুরুষ সংগঠনের পক্ষ থেকে দুস্থদের মাঝে একশটি লুঙ্গি ও নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়। দুস্থরা তাদের আনন্দ প্রকাশ করে সংগঠন ও সংগঠকদের দীর্ঘায়ু কামনা করেন। উক্ত অনুষ্ঠানের শেষে থানার মোড়ের টেক্সমার্ট এর সামনে শত শত দর্শক করতালীর মাধ্যমে কালপুরুষ সংগঠনের এই মহান উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। এতে সংগঠকেরা উৎসাহিত হয়ে সামনে আরও ভালো কিছু উদ্যোগ নিয়ে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

মন্তব্য করুন