Breaking News :

বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী তুলে দেয়া হল সঙ্গীত পরিচালক রিপন খানের হাতে

‘পড় মুজিব’ প্রোগ্রামের আওতায়, ‘ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরাম’এর উদ্যোগে, এবার সাংস্কৃতিক অঙ্গনের শিল্পীদের হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী।

সঙ্গীত পরিচালক রিপন খানের হাতে প্রোগ্রামের পক্ষ থেকে কপিটি তুলে দিয়েছেন ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরাম-এর বোর্ড সদস্য মুনা চৌধুরী।

‘পড় মুজিব’ প্রোগ্রামটির উদ্দেশ্য আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ, দর্শনের সাথে নতুন প্রজন্মকে পরিচিত করা। সেই উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও কারাগারের রোজনামচার পাঠ চক্র পরিচালনা হয়। পাশাপাশি শিশু-কিশোরদের বঙ্গবন্ধুর ছেলেবেলার সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ অবলম্বনে তৈরি মুজিব গ্রাফিক নভেল বিভিন্ন স্কুল ও মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হয়।

এই আয়োজনটি শুরু হয়েছিল কুষ্টিয়া জেলার বিভিন্ন উপজেলায়। শুরু করার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে সারা দেশে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে। এখন দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও প্রত্যন্ত গ্রামের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন হচ্ছে।

সঙ্গীত পরিচালক: রিপন খান
সঙ্গীত পরিচালক রিপন খান

সঙ্গীত পরিচালক রিপন খান বলেন, আমাদের চেতনায় বঙ্গবন্ধুকে ধারণ করার ক্ষেত্রে এ ধরণের উদ্যোগ সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে দেয়া উচিত। শিল্পাঙ্গনের ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরামের এই উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে জানার অনেক কিছু আছে। মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলো আমাদের পূর্বপুরুষ। এখন আমাদের সময় সেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করা। আর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা হিসেবে কাজ করেছিলো। তাই তাকে না জেনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ সম্ভব নয়। বইটি হাতে পেয়ে আমি আনন্দিত। শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে লেখা তার বিভিন্ন কথা পড়তে নিশ্চয়ই অনেক ভালো লাগবে।

এদিকে বইটি হাতে দেয়ার পর ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরামের বোর্ড সদস্য মুনা চৌধুরী বলেন, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরামের সভাপতি সুফি ফারুক ইবনে আবু বকর সাহেবের এমন একটি উদ্যোগের অংশ হতে পেরে আমি গর্ব অনুভব করি। বঙ্গবন্ধুকে না জেনে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানা সম্ভব নয়। তাঁর নিজের হাতে লেখা বইটি ‘ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরাম’র মাধ্যমে বর্তমান সময়ের সকল শিল্পীদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের সেই প্রেরণা ছড়িয়ে দিতে বদ্ধপরিকর।

পড় মুজিব কর্মসূচি সম্পর্কে কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফোরামের সভাপতি সুফি ফারুক ইবনে আবু বকর জানান, পড় মুজিব কর্মসূচি মূলতঃ মফস্বলের শিশু-কিশোরসহ সারা দেশের মানুষের কাছে বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ তুলে ধরা। যাতে করে বর্তমান প্রজন্মের শিশু কিশোররা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছেলেবেলা সম্পর্কে জানতে পারে। শুধু শিশু কিশোর নয় বর্তমান প্রজন্মের সকলেরই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ সম্পর্কে জানা প্রয়োজন বলে আমি মনে করি। তাই এই কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। ‘টিম সুফি ফারুক’ এ কর্মসূচিকে সফল করতে নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

#রিপনখান #মুনাচৌধুরী #পড়মুজিব #জয়বাংলা #জয়বঙ্গবন্ধু #YBCF

 

 

এডিট- এসএস

Read Previous

“মুসলিমদের স্বর্ণযুগ” কোনটি? কিভাবে এসেছিল? কেমন ছিল সেই সময়?

Read Next

বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী তুলে দেয়া হল সঙ্গীতশিল্পী আঁখি আলমগীরের হাতে