পাটের জিন-নকশা উন্মোচনে প্রযুক্তিতে কুষ্টিয়ার পক্ষ থেকে অভিনন্দন

পাটের জিন-নকশা উন্মোচনের ভেতর দিয়ে আমাদের দেশ একটি দীর্ঘদিনের উদ্যোগ সাফল্য পেল। এ জন্য প্রযুক্তিতে কুষ্টিয়ার আমরা মাকসুদুল আলম এবং তার সহযোদ্ধাদের আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। বছর দুয়েক ধরে এই গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা কর্মকাণ্ড সম্পন্ন করার জন্য আমাদের দেশের বিজ্ঞানীদের অনেকের দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হয়েছে, কিন্তু সফলতা আসেনি । বর্তমান সরকারের কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এই বিষয়টিকে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে কাজটি সমাধা করার সকল সহযোগিতা করেছেন। এ জন্য বাংলাদেশের প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা সকল মানুষের পক্ষ থেকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাই।

আমাদের সবিশেষ কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন দিন-বদলের সরকার প্রধান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি। তিনি কেবল এই কর্মকাণ্ডে উৎসাহ যোগাননি, কেবল রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে তর্কে লিপ্ত জাতীয় সংসদে এই ঘোষণা দিয়ে বাংলাদেশের বিজ্ঞানের ইতিহাসে এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা করেছেন। একটি বিজ্ঞান ভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণে তার এই উদ্যোগ নি:সন্দেহে আমাদের বিজ্ঞানী এবং তরুণদের উৎসাহিত করবে। পাশাপাশি আমরা দেশের গণমাধ্যমগুলোকে এই সাফল্যের অংশীদারিত্ব দিতে চাই।

আমরা আশা করি জেনোমিক্সের হাত ধরে আমাদের দেশ এগিয়ে যাবে ফাংশনাল জেনোমিক্সের দিকে এবং নতুন প্রজাতির পাটের উদ্ভাবন করতে পারবে। পাটের তন্তুকে মিহি ও সরু করতে পারলে সেটি হবে রেশমের সমতুল্য। আবার পাটখড়ি দিয়ে আমরা যে সব বস্তু নির্মাণ করি সেগুলোতেও বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনা সম্ভব হবে। এজন্য আমাদের পরীক্ষাগারের গবেষণা এবং মাঠে তার প্রয়োগ এই দুইয়ের মধ্যে সমন্বয় সাধন করতে কর্তৃপক্ষ পদক্ষেপ নেবেন। আমরা আশা করি আমাদের নতুন প্রজন্মের বায়োটেকনোলজিস্ট আর তত্যপ্রযুক্তিবিদদের জন্য আরও কাজের সুযোগ তৈরি করে দেশের সমৃদ্ধিতে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেবে দিন বদলের সরকার।

সভাপতি,

প্রযুক্তিতে কুষ্টিয়া

 

 

 

এডিট- এসএস

মন্তব্য করুন