পেশা পরামর্শ সভা – কুমারখালী উপজেলার, শিলাইদহ ইউনিয়নের, শিলাইদহ বাজার

শিলাইদহ বাজার : প্রযুক্তিতে কুষ্টিয়ার উদ্যোগে কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার শিলাইদহ ইউনিয়নের, শিলাইদহ গ্রামের, শিলাইদহ স্কুলে ‘পেশা পরমর্শ সভার’ আয়োজন করা হয়েছে।

উক্ত সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য প্রযুক্তিবিদ সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর। অন্যান্য আলোচকরা ছিলেন শিলাইদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সলাউদ্দিন খান তারেক, প্রযুক্তিতে কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক রাকিবুজ্জামান। অনুষ্ঠানে বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশের উদ্যোগের মাধ্যমে পেশাজীবী ও উদ্যোক্তাদের জন্য তৈরি হওয়া বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।

সরকারের তৈরি এসব সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যৎ পেশাজীবী ও উদ্যোক্তাবৃন্দ কিভাবে নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারবেন সেসব বিষয়ে আলাপ করা হয়। আলাপ হয় বিশ্বব্যাপী প্রযুক্তির প্রভাবে বদলে যাওয়া নতুন সময় নিয়ে এবং সেখানে আমরা বাংলাদেশের মানুষরা নিজেদেরকে পেশাগত ও ব্যবসা বাণিজ্যের মাধ্যমে তুলে ধরবে।

পেশা পরামর্শ সভা - কুমারখালী উপজেলার, শিলাইদহ ইউনিয়নের, শিলাইদহ বাজার : Pesha Poramorsho Shobha, Shelaidah Bazar
পেশা পরামর্শ সভা – কুমারখালী উপজেলার, শিলাইদহ ইউনিয়নের, শিলাইদহ বাজার

সুফি ফারুক বলেন, শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ ও সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরিকল্পিত জ্ঞানভিত্তিক অর্থনীতিতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার উপযোগী করে আমাদের ছেলেমেয়েদের তৈরি করতেই এই উদ্যোগ।

আমাদের বেকার তারুণ্য সঠিক দিক নির্দেশনা পেলে ভালো কিছু করতে পারে তার নজির বহুবার প্রমাণ হয়েছে। আমরা তাই এই শিক্ষিত তরুণ সমাজ কে দক্ষ জনশক্তি ও দেশের মূল্যবান সম্পদ হিসেবে গড়ে তুলতে একের পর এক ‘পেশা ও পরামর্শ সভা’ করে চলেছি।

এই প্রকল্পের আওতায় কুমারখালী-খোকসার তরুদের ডিজিটাল বাংলাদেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর পেশাগুলোর উপযুক্ত হয়ে তৈরি হাবার জন্য সচেতনতা ও দিকনির্দেশনা দেয়া হয়।

পাশাপাশি তাদেরকে এসব সভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্মিত ডিজিটাল বাংলাদেশ ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য পুত্র ও তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব জয়ের ভবিষ্যৎ জ্ঞান ভিত্তিক অর্থনীতির বাংলাদেশের অবারিত পেশাজীবীদের সম্ভাবনাগুলো তুলে ধরা হয়। এছাড়া সেসব পেশা গ্রহন করার উপযোগী হয়ে তৈরি হবার জন্য প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেয়া হয়।

বিভিন্ন খাতের সফল পেশাজীবী ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষকদের দিয়ে পরিচালিত হয় এসব কর্মশালা। সকল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্যই মূলত এই আয়োজন। পাশাপাশি যারা বর্তমানে লেখাপড়া শেষ করে কর্মহীন রয়েছেন তারাও অংশগ্রহণ করে এসব কর্মশালাতে।

পেশা বাছাই, নিজেকে পেশাজীবী হিসেবে গড়ে তোলা, সিভি বানানো, ইন্টার্ভিউ দেয়া সহ সফল হবার জন্য দরকারি বিভিন্ন বিষয়ে হাতে কলমে পেশাদারি প্রশিক্ষক গনের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। স্কিল এসেসমেন্টের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের অধিকতর প্রশিক্ষণের প্রয়োজনীয়তা অনুধাবিত হলে তাদের জন্য সে ধরনের প্রশিক্ষণের আয়োজন বা অন্য কোন যায়গা থেকে প্রশিক্ষণ নেবার জন্য বৃত্তির ব্যবস্থা করে দেয়া হয়।

এই পুরো বিষয়টি শিক্ষার্থীদের জন্য সম্পূর্ণ ফ্রি। অর্থাৎ সুফি ফারুক এর পক্ষ থেকে উপহার।

সুফি ফারুক ঘোষণা করেছেন কুমারখালী-খোকসায় একটি শিক্ষিত, দক্ষ, কর্মক্ষম ও রুচিশীল প্রজন্ম তৈরিই আমার- ‘জয় বাংলা’। তার সেই স্বপ্ন পূরণের ধারাবাহিকতায় নেয়া সকল প্রকল্পের মধ্যে এটি অন্যতম।

প্রসঙ্গত: আগামী দিনের পেশা সম্পর্কে সচেতনতা তৈরির মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মকে দিক নির্দেশনা দেয়া এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য।

[ পেশা পরামর্শ সভা – কুমারখালী উপজেলার, শিলাইদহ ইউনিয়নের, শিলাইদহ বাজার ]

আরও পড়ুন :

প্রকল্প – পেশা পরামর্শ সভা – কী, কেন, কিভাবে?